আরেকটি হোয়াইটওয়াশের আনন্দ টাইগারদের » Sheersha Khobor

আরেকটি হোয়াইটওয়াশের আনন্দ টাইগারদের

বুধবার, ২১ জুলাই ২০২১
শীর্ষখবর

  •  
  •  
  •  

সিরিজ নিশ্চিত হয়েছিল আগের ম্যাচেই। তবে আরেকটা উপলক্ষ ছিল শেষ ওয়ানডেতে। সেই উপলক্ষও উৎসবে রঙিন হলো। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে জিম্বাবুয়েকে তাদের মাঠেই হোয়াইটওয়াশ করেছে বাংলাদেশ। হারারে স্পোর্টস ক্লাবের শেষ ম্যাচ লাল-সবুজের জার্সিধারীরা জিতেছে ৫ উইকেটে। 

তাতে আরেকটি হোয়াইটওয়াশ আনন্দে মাতলো বাংলাদেশ। ওয়ানডেতে তামিম ইকবাল কতটা শক্তিশালী, তার প্রমাণ আরেকবার দিলো এবারের সিরিজে। আর এ উপলক্ষের কারিগর অধিনায়ক তামিম নিজেই। শেষ ওয়ানডেতে তার সেঞ্চুরিতেই তৈরি হয় জয়ের পথ। শেষ দিকে নুরুল হাসান সোহান ও আফিফ হোসেনে ব্যাটে ভর করে আফ্রিকার দলটিকে ওয়ানডেতে ষষ্ঠবারের মতো হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবলো বাংলাদেশ। 

স্বাগতিকদের দেয়া ২৯৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারের আগে ৫ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌছে যায় বাংলাদেশ। যার ফলে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে জিতলো তামিম ইকবালরা। আর এ জয়ে আইসিসি সুপার লিগে ৮০ পয়েন্ট নিয়ে নিজের অবস্থান শক্তিশালী করলো বাংলাদেশ। পাশাপাশি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫০তম জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। ৭৭ ম্যাচে বাংলাদেশ জিতেছে ৫০টি ম্যাচে। 

লক্ষ্য তাড়ায় শুরুটা শুভ সূচনা করে অধিনায়ক তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। এই দুই ব্যাটসম্যান ৮৮ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েন। তবে লিটন ৩২ রানের বেশি করতে পারেননি। মাধভেরের বল সুইপ করতে গিয়ে ফাইন লেগে ক্যাচ দেন। তামিমের নতুন সঙ্গী হিসাবে মাঠে নামে সাকিব। এর আগে নিজের ক্যারিয়ারে ৫২তম ফিফটি করেন তামিম।

এরপর তামিম ও সাকিবের জুটিতে এগুতে থাকে বাংলাদেশের রান। বিমাল লক্ষ্য তাড়া করতে যেভাবে ব্যাটিং করার প্রয়োজন ঠিক সেভাবেই ব্যাটিং করেন তামিম। কিন্তু ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ ছিলো সাকিব। তামিমের সঙ্গে ৬৮ বলে ৫৯ রানের জুটি গড়ে সাজঘরে ফিরেন সাকিব। জুটিতে তার অবদান ৩০ রান।

সাকিব ফিরে গেলেও তামিমের ব্যাট থামেনি। তুলে নেন ওয়াডে ক্যারিয়ারের ১৪তম সেঞ্চুরি। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে যা চতুর্থ। ৮৭ বলে সেঞ্চুরিতে পৌঁছেছেন তামিম। ওয়াডেতে এটি তার দ্রুত তম সেঞ্চুরি। কিন্তু সেঞ্চুরির পর বেশিক্ষণ মাঠে থাকতে পারেননি তামিম ইকবাল। পেসার টিরিপানোর অপস্ট্যাম্পের বাইরে বল খোঁচা মারতে গিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন তামিম। পুরো ইনিংসে দুর্দান্ত ব্যাটিং করা তামিম মনোযোগ হারিয়ে আলগা শট খেললেন। ৯৭ বলে ১১২ রান করে তামিম ফেরেন সাজঘরে। তামিমের পরেই ডাক মেরে সাজঘরে ফিরেন মাহামুদুল্লাহ।

এরপর মোহাম্মদ মিঠুন ও কাজী নুরুল হাসান সোহানের দারুণ ব্যাটিং বাংলাদেশের রানের চাকা ফের সচল হয়। তবে মোহাম্মদ মিঠুন ৫৭ বলে ৩০ রান ফিরে গেলে আবারও চাপে পরে বাংলাদেশ। সেইখান থেকে বাংলাদেশকে জয়ের বন্দরে পৌছায় নুরুল হাসান সোহান ও আফিফ হোসেন। 

শীর্ষ খবর/আ/আ

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Page

Sheersha Khobor UK

বিজ্ঞাপন

একটি ভোরের প্রতীক্ষায়

Hameem Travel

add-1