কেমন আছেন দেশমাতা খালেদা জিয়া » Sheersha Khobor

কেমন আছেন দেশমাতা খালেদা জিয়া

বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২১
শীর্ষখবর

  •  
  •  
  •  

“এভারকেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার হিমোগ্লোবিন হঠাৎই কমে গিয়েছিল। তবে রক্ত দেওয়ার পর ধীরে ধীরে উন্নতি হয় তাঁর শারীরিক অবস্থার।”
হঠাৎ করে গভীর রাত্রে এই বক্তব্যটি প্রচারের মাজেজা কি হবে !
এদিকে সরকার সারা দেশে রেড় এলার্ট জারি করছে অথচ “ তবে রক্ত দেওয়ার পর ধীরে ধীরে উন্নতি হয় তার শারিরিক অবস্থার” কথা বলে আমরা কাদেরকে সহযোগিতা করছি !!!
দেশমাতা খালেদা জিয়ার অবস্থা ভাল নয়। যে কোন সময় সব শেষ হয়ে যেতে পারে। সরাকারের রেড এলার্ট জারি তারই আলামত। তাই জনগণ দেশমাতার খালেদা জিয়ার স্বাস্থের লাগাতার বুলেটিন প্রচার করার দাবী জানাচ্ছে। তাছাড়া জনগণ দিনে অন্তত একবার দেশমাতার খালেদা জিয়ার তাৎক্ষনিক ছবিসহ উনার স্বাস্থের সরাসরি সম্প্রচার দেখতে চায়।

আমি আবারও সব নেতাকর্মীদের কাছে বিনীত অনুরোধ জানাই,এসি রুমের ভিতর শুয়ে না থেকে,অন্বেষণ না করে, সবাই যেন দয়া করে হাসপাতালে এসে দেশমাতা খালেদা জিয়ার পাশে এসে দাঁড়ান ।

দেশমাতা খালেদা জিয়ার জীবদ্দশায় যদি এখনটেলি পাশে দাঁড়াতে না পারেন তাহলে আল্লাহর ওয়াস্তে আপনারা কেউ দেশমাতা খালেদা জিয়ার জানাজায় আসবেন না।

রেড এলার্ড

জন্ম-মৃত্যু আল্লাহ কর্তৃক নির্ধারিত স্বাভাবিক ঘটনা। জীবনচক্রের এ খেলায় আমরা কেউই ব্যতিক্রম নই। মৃত্যু আসবেই। স্রষ্টার কাছে প্রত্যাবর্তন প্রতিটি মানুষের জন্য অবধারিত।তবু আমরা বেঁচে থাকার সাধনা করি। রোগে পড়লে ডাক্তারের কাছে ছুটি, হাসপাতালে ভর্তি হই, পথ্য সেবন করি, দোয়া চাই—যেন বেঁচে থাকি।

বেগম খালেদা জিয়া শারীরিকভাবে খুবই অসুস্থ। ৭৬ বছর বয়েসে নানান জটিলতা নিয়ে তিনি এখন এভারকেয়ারে। এটা বোধগম্য। আমরা জানি, তাঁর উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন এবং এ মুহূর্তে তা কেবল বিদেশেই সম্ভব। কিন্তু অনির্বাচিত-অবৈধ সরকার তাঁকে দেশের বাইরে যেতে দিচ্ছে না। রাস্তার লোক হরহামেশা সিঙ্গাপুর-থাইল্যান্ড-যুক্তরাজ্য দৌড়াচ্ছে সর্দি-কাশি সারাতে। আর বেগম খালেদা জিয়াকে তারা দেখায় হাইকোর্ট। আমরা তাই শঙ্কিত। আমাদের ভেতরটা দুরু দুরু কাঁপছে। আমরা জানি না, তিনি কেমন আছেন। নয়নভরা জল নিয়ে আমাদের শুধু একটাই আকুতি, মানুষের নেত্রী পরিপূর্ণ সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসুন। তাঁকে ছাড়া আমরা যে কতটা অসহায়, খুনীদের রেড এলার্ট জারির পর থেকে তা তিলে তিলে টের পাচ্ছি।

আমার মন বলে, উপযুক্ত চিকিৎসা পেলে জননী ভালো হয়ে উঠবেন। রেড এলার্ট প্রতারণার নতুন এক ফাঁদ। জনতার দানা বেঁধে ওঠা ক্ষোভ, বিস্ফোরনন্মুখ ক্রোধ ঠিকই অনুভব করছে ভীত অবৈধরা। নিশ্চিত, তাতে জল ঢেলে দেওয়ার জন্য জারি করা হয়েছে লাল সতর্কতা। শাসকগোষ্ঠী ভাবছে, আমরা হঠাৎ দুমড়েমুষড়ে পড়ব। রুদ্ধ হবে আমাদের ঘুরে দাঁড়ানোর পথ। তারা আমাদের নার্ভের পরীক্ষা নিচ্ছে।

নার্ভ ভোঁতা হয়ে যাওয়ার আগেই তাই হন্তারকদের ওপর জারি করতে হবে আমাদের রেড এলার্ট।

এস, এম, জিয়াউর রহমান পলাশ

শীর্ষ খবর/আ/আ

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Page

Sheersha Khobor UK

একটি ভোরের প্রতীক্ষায়

বিজ্ঞাপন

একটি ভোরের প্রতিক্ষায়

Hameem Travel

HAMEEM TRAVEL