১ কোটি ২০ লাখ টাকায় সিলেট ছাত্রলীগের ৪টি পদ বিক্রি » Sheersha Khobor

১ কোটি ২০ লাখ টাকায় সিলেট ছাত্রলীগের ৪টি পদ বিক্রি

মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১
শীর্ষখবর

  •  
  •  
  •  

করোনা মহামারি আর নানা কারণে গত হয়েছে প্রায় চার বছর। দীর্ঘদিন পর সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন দেয়া হলেও কমিটি ঘোষণার পরপরই দ্রোহের আগুন ছড়িয়ে পড়েছে সিলেটে।

জেলা ও মহানগররের নতুন দুটি কমিটিকে প্রত্যাখ্যান করেছেন সাবেক নেতৃবৃন্দ ও তাদের অনুসারীরা।

শুধু প্রত্যাখ্যান করেই থেমে থাকেননি- টাকার বিনিময়ে আংশিক এই কমিটি ঘোষণার গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন তারা। ক্ষোভে ইতোমধ্যে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছে কেন্দ্রীয় কমিটিতে ঠাঁই পাওয়া একাধিক ছাত্রলীগ নেতা। এছাড়াও বিক্ষোভ মিছিল ও সভা করেছেন জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মী।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য জেলা ও মহানগর কমিটির সভাপতি ও সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন।

সিলেট জেলা ছাত্রলীগের নতুন সভাপতি হয়েছেন মো. নাজমুল ইসলাম আর সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন রাহেল সিরাজ। অপরদিকে, সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হয়েছেন কিশোয়ার জাহান সৌরভ ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন নাঈম হাসান।

কমিটির দায়িত্বশীলদের নাম ঘোষণার পর সভাপতির পদ পাওয়া দুটি বলয়ে উচ্ছ্বাস দেখা দিলেও ক্ষোভ দেখা দেয় সিলেট ছাত্রলীগের অন্য বলয়গুলোতে।

টাকার বিনিময়ে এই কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সর্বশেষ কমিটির সভাপতি শাহারিয়ার আলম সামাদ।

বিকেল ৪টায় তেলিহাওর থেকে তার নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিল শেষে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, জেলা ও মহানগর কমিটির শীর্ষ ৪টি পদ ৩০ লাখ করে মোট ১ কোটি ২০ লাখ টাকায় বিক্রি হয়েছে। যাদের পদ দেয়া হয়েছে তারা কোনো ছোট গাড়ি স্ট্যান্ডের কমিটি পরিচালনারও যোগ্যতা রাখেন না। এছাড়াও তারা অছাত্র।

জানা গেছে, নতুন কমিটি ঘোষণার পরপরই ছাত্রলীগের একাংশের মধ্যে চরম ক্ষোভ দেখা দেয়। তেলিহাওর গ্রুপের রাহেল সিরাজ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ পেলেও গ্রুপের অভ্যন্তরে অসন্তোষ চরমে পৌঁছায়। তেলিহাওর গ্রুপের বড় অংশের নেতাকর্মীরা রাহেল সিরাজের পরিবর্তে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে চেয়েছিলেন জাওয়াদ ইবনে জাহিদ খানকে। কিন্তু জাওয়াদকে সাধারণ সম্পাদক না করে কেন্দ্রীয় সদস্য করায় গ্রুপটির নেতাকর্মীরা বিকেল ৪টায় তেলিহাওর থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিল থেকে তারা জেলা ছাত্রলীগের নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক রাহেল সিরাজের নাম ধরে কটুক্তিমূলক নানা স্লোগান দেন।

মিছিলটি নগরীর জিন্দাবাজার আল-হামরা মার্কেটের সামনে আসলে পুলিশ মিছিলকারীদের বাধা দেয়। পুলিশী বাধা উপেক্ষা করে মিছিলটি সামনে অগ্রসর হয়। চৌহাট্টা পয়েন্টে গিয়ে বিক্ষোভকারী নেতাকর্মীরা টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করেন। কিছু সময় সড়ক অবরোধ শেষে ফিরে যান তারা।

অপরদিকে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মহানগর কমিটিকেও প্রত্যাখ্যান করে বিক্ষোভ মিছিল ও সভা করেছেন নেতাকর্মীদের একাংশ। বিকাল সাড়ে ৫টায় মহানগর ছাত্রলীগের ‘বিদ্রোহী অংশ’ নগরীর চৌহাট্টা এলাকার সড়ক ও জনপথ বিভাগের ভবনের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। পরে সেটি বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে চৌহাট্টা পয়েন্টে এসে এক সভায় মিলিত হয়।

সভায় তারা কেন্দ্রের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে কমিটির শীর্ষ পদ বিক্রির অভিযোগ করে নতুন কমিটি প্রত্যাখ্যান করেন। এসময় মহানগর কমিটির গুরুত্বপূর্ণ পদে জামায়াত-শিবির নেতাকে স্থান দেয়ারও অভিযোগ করেন নেতৃবৃন্দ।

শীর্ষ খবর/আ/আ

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Page

Sheersha Khobor UK

একটি ভোরের প্রতীক্ষায়

বিজ্ঞাপন

Hameem Travel

add-1